মধ্যরাত থেকে ৫৮ জেলায় গাড়ি চলাচল বন্ধ

লেখক: Arifuzman Arif
প্রকাশ: ৫ মাস আগে

চতুর্থ ধাপে ৫৮ জেলার ১১৮ উপজেলার ৮৩৮ ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) আগামীকাল রোববার (২৬) ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের পরিবেশ ভালো রাখতে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনি এলাকায় শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) মধ্যরাত (রাত ১২টা) থেকে ২৪ ঘণ্টার জন্য যন্ত্রচালিত সব ধরনের যানচলাচল বন্ধ থাকবে।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) যুগ্ম-সচিব ও পরিচালক (জনসংযোগ) এসএম আসাদুজ্জামান জানান, শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) মধ্যরাত (রাত ১২টা) থেকে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনি এলাকায় মোটরসাইল চলাচল বন্ধ রয়েছে। মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ থাকবে ২৯ নভেম্বর (সোমবার) মধ্যরাত (রাত ১২টা) পর্যন্ত।

এছাড়া, শনিবার  (২৭ নভেম্বর) মধ্যরাত (রাত ১২টা) থেকে ২৬ নভেম্বর (রবিবার) মধ্যরাত (রাত ১২টা) পর্যন্ত সব যন্ত্রচালিত যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে সাংবাদিক, নির্বাচন কর্মকর্তা-কর্মচারি, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীসহ জরুরি সেবার কাজে নিয়োজিতদের জন্য এই নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না।

তিনি জানান, ৮৩৮টি ইউপির মধ্যে ৩৮টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) এবং বাকিগুলোতে প্রচলিত ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে। ইতোমধ্যে এসব নির্বাচনি এলাকায় সব ধরনের প্রচারণা বন্ধ রয়েছে।

এসএম আসাদুজ্জামান জানান, ভোটের পরিবেশ শান্ত রাখতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ইতোমধ্যে নির্বাচনি এলাকায় অবস্থান নিয়েছেন। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ২২জন করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ভোটের দায়িত্বে থাকবেন।

এছাড়া, প্রতি ইউপিতে পুলিশ, এপিবিএন ও ব্যাটালিয়ন আনসারের সমন্বয়ে একটি করে মোবাইল ফোর্স এবং প্রতি তিনটি ইউপিতে তিনটি করে স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া, প্রতি উপজেলায় র‌্যাব-এর দুটি মোবাইল টিম ও একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স; প্রতি উপজেলায় বিজিবি’র দুটি মোবাইল ফোর্স (দুই প্ল্যাটুন), একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স (এক প্ল্যাটুন); প্রতি উপকূলীয় উপজেলায় কোস্টগার্ডের দুটি মোবাইল টিম (দুই প্ল্যাটুন) ও একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স (এক প্ল্যাটুন); প্রত্যেক উপজেলায় একজন করে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

চতুর্থ ধাপের ৮৩৮ ইউপিতে একক প্রার্থী হওয়ায় বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ২৯৫ জন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান ৪৮, সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার ১১২ এবং ১৩৫ জন সাধারণ মেম্বার রয়েছে।

এই ধাপে চেয়ারম্যান পদে তিন হাজার ৮১৪ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে নয় হাজার ৫১৩ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৩০ হাজার ১০৬ জন প্রার্থী ভোটের লড়াই করবেন।

নয় হাজার ২২৪টি ভোটকেন্দ্রের ৪৯ হাজার ৮৩২টি ভোটকক্ষে এক কোটি ৬২ লাখ ৭৪ হাজার ৬৬০ জন ভোটার তাদের ভোটারধিকার প্রয়োগ করবেন।

ইতোমধ্যে তিন ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ করেছে ইসি। পঞ্চম ধাপে ৭০৭টি ইউপিতে ৫ জানুয়ারি এবং ষষ্ঠ ধাপে ২১৯ ইউপিতে ৩১ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।